Norway Meteor; হঠাৎ আলোকিত হলো অসলোর আকাশ

Norway Meteor; আকাশে প্রচণ্ড আলো ও শব্দ হয়ে কয়েক সেকেন্ডের মধ্যেই হঠাৎ করে আকশ ঝলমলে হয়ে উঠল! এরকম আশচর্যকর ঘটনা দেখে রীতিমতো নরওয়েবাসী চোমকে উঠে।আকাশে ওটা কি ছুটে আসছে? কেন বা এতো আলো ছড়িয়ে পরল?

রাতের আকশে উজ্জল আলোকিত হয়ে একটি বস্তুকে ছুটতে দেখলো নরওয়ে এলাকাবাসী। তাঁরা এই ঘটনাটি দেখে অনেকেই অবাক হয়ে উঠে।

এই দৃশ্য দেখে রীতিমতো অবাক হয়ে যায়। কি হয়েছিল সেদিন?

এরকম ঘটনা ঘটে একটি উল্কাপিণ্ডের উল্কাপাতের ফলে রাতের আকাশ আলোকিত হয়ে উঠে প্রচণ্ড শব্দ শুনতে পায়। নরওয়ের উত্তর পুর্ব দিকে রাতের আকাশে বড় একটা Norway Meteor হয়।এই  উল্কাপিণ্ডের উল্কাপাতের ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হতে দেখা গিয়েছে। প্রত্যেক ভিডিও গুলিতে বিকট শব্দ ও উল্কাপাতের আকশ ঝলমল দেখা গেছে।

এই উল্কা প্তের খবর পেয়ে ইতি মধ্যেই বিশেষজ্ঞরা উল্কাপিণ্ডের খোঁজে নেমে পরেছেন।

তাদের ধারনা, অসলোর কোনো বনের মধ্যেই এই উল্কাপিণ্ডের পরেছে বলে জানাছেন।

সাধারনত উল্কাপিণ্ড মহাকাশ থেকে দ্রুতগতিতে ছুটে আসে পৃথিবীর বায়ুমণ্ডলে প্রবেশের পর পুড়ে ছায় হয়ে যায়।

Norway Meteor ব্যাপারটা কি 

এই আগুনের গোলকটি আবির্ভাব রাত একটার সময় ঘটে, আকাশ ঝলমলে হয়ে আলকিত হয়ে উঠে। সেকেন্ডে ১৬.৩ কিমি গতিবেগে উল্কাপিণ্ডটিকে দক্ষিণ স্ক্যান্দিনেভিয়া থেকে এই ঘটনাটি দেখা যায়।

এই এলাকার মানুষ প্রথমে কম্পন শুনতে পায় ।এরপরে বড় বিস্ফোরণের শব্দ শুনে, ঝলমলে আলকিত আকশ দেখতে পায়।

তবে উল্কাপাতের ঘটনা এর আগেও নরওয়ে হয়েছে। ২০১৩ সালের উরাল পর্বতে উল্কাপাতের ফলে ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হতে দেখা গিয়েছিল। অনেক মানুষকে আহত হয়, প্রায় ১৬০০ জন। 

বিশেষজ্ঞ ধারনা করছে এই উল্কাপিণ্ডটি অসলোর ৬০ কিমি পশ্চিমে ফিনেমারকা নামের বনভুমিতে এই উল্কাপিণ্ড পরেছে ।

ইতিমধ্যেই এই এলাকাতে  বিশেষজ্ঞদল পাঠানো হয়েছে। ধারনা করা হয়েছে এই উল্কাপিণ্ডের ওজন ১০ কেজি হতে পারে।

সাধারণত উল্কাপাত মহকাশ থেকে ছুটে বায়ুমণ্ডলে প্রবেশ করার সাথেই পুড়ে ছাই হয়ে যায়।

নরওয়ের পুলিশরা জানায়, উল্কাপাতের সময় তাঁরা অনেক কল পেতে শুরু করেছে । তবে এই উল্কাপাতের ফলে কোনো হতাহতের খবর পাওয়া যায়নি।

বিশেষজ্ঞরা Norway Meteor ঘটনাটি বিপদজনক না বলে ‘ অদ্ভুত’ বলে আখ্যায়িত করেছে। বিশ্বের ইতিহাসে এই ধরণের উল্কাপাত ঘটনা প্রায় বিরল।

error: Content is protected !!