tiktok; নুতুন নামে ভারতে আসতে চলেছে

Tiktok Apps; একসময় বিশাল জনপ্রিয়তা ছিল আমাদের ভারতবর্ষে । এই টিকটক অ্যাপসটি কারোও ফোনে নেয় এমন ব্যাক্তি দেখা মেলে না। আমাদের প্রত্যেকের ফোনে এই আপসটি ছিলো। আমাদের প্রত্যেকের অবসর সময়ে এই টিকটক ব্যাবহার করতে দেখা গিয়েছে। টিকটকের ভিডিও দেখার জন্য জনপ্রিয়তা দেখা গিয়েছ তেমনি আবার ভিডিও তৈরিতে জনপ্রিপ্রিয়তা মিলেছে। এটি আবার অনেকের একটি উপার্জনের একাটা দিক ছিল ।এই অ্যাপসটি বন্ধের পর অনেকেই তাদের উপার্জন হারিয়েছে।

এমনিকি এটির জনপ্রিয়তা এতো বেড়ে গিয়েছিল যে এটি ফেসবুক , ইনস্টাগ্রামের মতো সোশ্যাল মিডিয়ার থেকেও বেশি ব্যাবাহার করেতে দেখা গিয়েছিলো। চিনের সঙ্গে সংঘাতের পর ভারত নিসিদ্ধ করেছিল টিক টক সহ একাধিক চিনা অ্যাপস। তবে এবার টিকটক ইউজারদের জন্য বিরাট সুখবর। তবে এবারে নাম পরিবর্তন করে আসতে চলেছে।

নুতুন নামে টিকটক

byte dance সংস্থার শর্ট ফিল্ম ভিডিও অ্যাপসটি কন্ট্রোল জেনারেল অফ পেটেন্টস- এই অ্যাপ্লিকেশান নুতুন নামের জন্য ফাইল জমা দিয়েছে। খবর মিলছে ,ডীজাইন ড্রেটমার্ক সব কিছু আগেভাগে করে রেখেই ভারতে আসার পরিকল্পনা করছে। টিপস্টার মুকুলশর্মা এই আপসটি আসার খবর টুইটারে শেয়ার করেছেন। এই খবর প্রচুর পরিমানে সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করতে দেখা যাচ্ছে। ২০২০ এর জানুয়ারী তে টিকটকসহ একাধিক অ্যাপস ৫৯ টি চিনা আপস নিশেধাঙ্গা জারি করে ।

ভারতের সংহিতি ,সার্বভৌমত্ব অক্ষন্য রাখার জন্য এবং নিরপত্তা  ও শৃঙ্খলা বিপদজনক বলে ভারত সরকার এই চিনা আপস গুলি নিশিদ্ধ করেছিলেন। tiktok নিশিদ্ধ হওয়ার পর এই কম্পানী প্রায় ২০ কোটি ইউজার হারিয়েছিলেন। সোশ্যাল মিডিয়া প্লাটফর্মের জন্য যে নুতুন বিধি নিষেধ চালু হয়েছে ,তা মেনে চলবে বলেছে  তথ্য প্রযুক্তি মন্ত্রক। তবে tiktok ইউজারদের কৌতুহল বেড়ে চলেছে এই নুতুন টিকটক অ্যাপস কেমন হবে।

তবে টিকটকের নাম বদল বলতে, নামের উচ্চারন এক রেখে শুধুমাত্র বানানের পরিবর্তন হবে । টিকটক বানান” টি আই কে টি ও কে tiktok থেকে ” টি আই সি কে টি ও সি কে ‘ ticktock হবে। তবে কেন্দ্র আই নুতুন টিকটক অ্যাপসটি লঞ্চ করার পারমিশন দেবে কি না? সেটাই দেখার বিষয়। এখনও পর্যন্ত এই অ্যাপসটি নিয়ে সরকারের বিচারাধীন আছে। তবে নেতিজনদের কৌতুহল বেড়েই চলেছে এই নুতুন অ্যাপস নিয়ে। 

error: Content is protected !!